গোলাম কিবরিয়া পিনু

ও বৃষ্টিধারা ও বারিপাত ১ রজনীজল এসে ভিজিয়ে তোলে অঙ্কুরও গাছ হবার স্ফূর্তি পায় প্রভাহীন আলোহীন অবস্থায় তৈরি হতে থাকে বাঁশঝাড়ের ভেতর অশথ। ২ পর্বতের গায়েও আজ বৃষ্টি এতদিন পর্বত ধুলোবালিকণা নিয়ে রুক্ষ ছিল পর্বতচূড়া ভিজে ভিজে আজ কান্তিময় সৌম্যদর্শনে নয়নশোভন। ৩ উদ্যানরক্ষক জানে জলের মাহাত্ম্য মালিনীও জানে কুঞ্জবনে তাই …

সম্পুর্ন​

গোলাম কিবরিয়া পিনু’র কবিতা

ড্রপসিন কালো টাকা সাদা করেও যে লোক সাদা থাকে–একটুও কালো হয় না ভূকম্পবলয় থেকে বেঁচে যায় ভূমিচাপা পড়েনা– নড়েনা অর্থলিপ্সা থেকে একবিন্দু বিন্দু বিন্দু ঘাম নেই–শুধু অর্থকাম ! তারা-তো বেঁচে থাকে সুখসেব্য সকল ব্যবস্থা নিয়ে তাদের কাপড় হরেকরকম বেশভূষা ঝলমল করে মলমল ও মসলিনে ! চোরাগুপ্তা পথে তাদেরই নিষ্ঠুরতা আঁধিঝড় …

সম্পুর্ন​

গোলাম কিবরিয়া পিনু’র কবিতা

ভ্রমণকালে   ভ্রমণকালে ভূখণ্ড আরো খণ্ড খণ্ড অনুভবে আসে, চিরহরিৎ মিঠেপাতার বৃক্ষ সবুজের ঘাসে। অন্ধকার ঢাকা গুপ্তস্থান সেইখানে বিদ্যুতের গান, বৈদ্যুতিক গোলযোগ নেই–শুধু বিদ্যুৎ চমকায়। গরম কেতলি ধরার বস্ত্রখণ্ড নাই তরুগুল্মাবৃত ছায়ামগ্ন উপত্যকা খুঁজে পাই। ভ্রমণসৃজনে শীতকাল ও মেরুঅঞ্চল মৌন বুনোফল নিয়ে বিজুবনে গৃহকাতরতা গৌণ।   অভিকর্ষ সারেং নদীতে যাচ্ছে …

সম্পুর্ন​