কিছু কবিতা


আলতাফ হোসেন


এখন পরীক্ষায় কী হবে
সাপখোপ হয়তো বেরবে
যা টক্সিক,তাই তো নিদান
হাসিমুখে আজ  ফিরে যান

ঘাসমাটি না বলে এনেছে একদিন
ওই দূর, দূর
ফেরার, অচিন


রোদ, রিক্সার কথা ভাই বলে যাও
পাহাড়টার ওপারে গেলেই শুধু হাওয়া
হয়তো সেই পাখিখেকো গাছটিই এসে দাঁড়াবে সাত হাত তুলে
দেখিয়ে দেবে লাল হয়ে কালো হয়ে যাওয়া পালক, হলুদ পা
আগুনছড়ানো রৌদ্রমণির কথা ভাই ভুলে যেয়ো না
লোকালয়ের রিক্সার ঘিরে ধরা, পথ আটকানো মনে রেখো
মাঝে মান্ধাতারঙের ওই মেঘউঁচু পাথর…


ক্রেনস্‌ আর ব্যালাড ফর আ…হোক না আবার
যারা যারা চলে গেছে প্রত্যেকেই আসুক দেখুক
ভেবে দরজা খুলেছি, আমি দাঁড়িয়েছি উৎসুক
অপেক্ষাটা…তখনই বুঝেছি, বাইরে পাখা মেলবার…


অনেক দুপুর
ফাটা গলা সাঁতার কাটছে
তেলাপোকা, ইঁদুর, পিঁপড়া
মারবেন
ভিডিও ক্যামেরা নাই নাই
তালিয়া বাজাও
সাক্ষ্য দেবেন কৃষ্ণমূর্তি
আজই ফেসবুকে তাঁর
‘মানুষ না-ও থাকতে পারে’
মন্তব্যে একজন :
‘সন্দেহ আছে নাকি?’

রিয়্যালপ্লেয়ারে কিন্তু এ কথা কটিই। বাকি, শব্দ বাতাসের


এখন কোথায় থাকো?
একদিন ছিলে?

তখন রূপা-র দেওয়া ক্যামেরাটা ছিল
একদিন চারতলা থেকে পড়ে ঝনঝন্

ঝাপসা একটা ব্যাটাছেলে-স্বর :’গান করো’
আবছা রানী মুখার্জি-র হাস্কি আওয়াজ :
‘বনে য-দি ফুটল-ও কুসুম’

যেন
ছিল ভিএলসি প্লেয়ারে
নেই, গেছে ভিবিএস…কুসঙ্গীর পেটে?

ছিলে, বলো?

 

Facebook Comments

One Comment:

  1. enjoyed !

Leave a Reply to kamal rahman Cancel reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *