স্বপন নাগের তিনটি কবিতা

গাছের কাছে নদীর কাছে

এই কথাটাই জানাতে চাই , জেনে রাখা ভালো :
অন্ধকারকে আড়াল করছে সাজানো সব আলো !

এই যে এত আলোর বাহার, আলোর মেদুর স্রোতে
বৃক্ষ দেখো মগ্ন কেমন স্বপ্ন এবং ব্রতে !

কোথায় ছুটে চলছে সবাই, ওদের ডেকে ব’লো-
একটি দুটি তিনটি কথা অনেক কথাই হ’লো ,
কোনো কথাই পৌঁছুল না অভীষ্ট তার লক্ষ্যে !

নদী জানে জলের কথা, জল জানে দুই চোখকে !

কথার আলোয় হারিয়ে যাচ্ছে অমোঘ সত্যটাও
গাছের কাছে যাও হে মানুষ, নদীর কাছে যাও !

ডাক

ঝোপের আড়াল থেকে একটানা কে ডাকে ?
ডাহুক ?

ডাকুক।
সব ডাকে সাড়া দিতে নেই।

সে কি জানে
যাকে সে আকুল হয়ে চায়
সে আছে মগ্ন এক অন্য ডাকে ?

ডাক আসে তবুও
অথবা আসে না

স্মৃতির ঘোলাটে জলে
সব ছবি কখনো একইরকম ভাসে না!

দাম্পত্য

আমি বলি, কল্পনা
তুমি নির্ঘুম স্বপ্নের কথা বলো
তুমি বলো, আকাশভরাসূর্যতারা
আমি শূন্যতার কথা বলি

অদৃশ্য এক দূরত্ব মাঝখানে দাঁড়িয়ে থাকে
তার ছায়া এসে পড়ে
আমাদের কথার দেওয়ালে

আমি সমুদ্রের কথা বলি
জলোচ্ছ্বাসের কথা
দিগন্তের কথা …
তুমি মগ্ন থাকো নিজস্ব রচনায়

গাঢ় এই দূরত্বের জালে
আমরা জড়িয়ে আছি দীর্ঘ আঠাশ বছর

 

স্বপন নাগ

জন্ম হাওড়া জেলার এক গ্রামে, ১৯৫৭ সালের ১০ই জুলাই। চাকরিসূত্রে দীর্ঘ কুড়ি বছর কেটেছে উত্তর প্রদেশের কানপুরে। ২০০২ থেকে উত্তর ২৪ পরগনার ইছাপুরে। প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ : ইচ্ছে আমার বনকাপাসী মাঠ, স্থির স্বপ্নে জেগে আছি, বিষাদ এসে ঘর বেঁধেছে এবং প্রিয় ২৫। জ্ঞানপীঠ পুরস্কারে সম্মানিত কবি কেদারনাথ সিং-এর পঁচিশটি বাছাই হিন্দি কবিতার বাংলা অনুবাদের একটি বইও আছে। রম্যরচনার একটি সংকলনের কাজ চলছে, শীঘ্রই প্রকাশিত হবে।

শুধু কবিতায় বেঁচে থাকার সাধ, আর কিছু নয়!

Facebook Comments

One Comment

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।