আবদুর রবের ভ্রমণগদ্য: রোম যেমন একদিনে গড়ে ওঠেনি, তেমনি মনট্রিয়লও

১ এই নিয়ে চারবার মনট্রিয়লে আসা হলো। প্রত্যেকবার হাতে মাস খানেক সময় নিয়ে এসেছি যাতে মনের মতো ঘুরতে পারি। কিন্তু প্রতিবারই ফেরার সময় মনে হয় আহা যা দেখতে চেয়েছিলাম তার …

নাভিদ চৌধুরীর ভ্রমণগদ্য-৩: শ্যাওলার নিশ্চিত যাত্রা

বসফরাসের নীল জল চাঁদের আলোয় ঝকমক করছে। আমি এক কাপ ধূমায়িত চা নিয়ে ওপারের আলো ঝলমলে ইস্তাম্বুলের মোহময়ী রূপ দেখছি। তুরস্কে আমার যৌবনের এক বড় সময় কেটেছে। ইস্তাম্বুল সেই তুরস্কের …

সুধাংশু শেখর বিশ্বাসের ভ্রমণ গল্প: দশরথের ঢোল

দশরথকে চিনতাম না আমি। নামও শুনি নি কখনও। এককালে সংস্কৃতি জগতে একটু আধটু বিচরণ ছিল বটে আমার। ছাত্রজীবনে ‘উদীচী’, ‘খেলাঘর’ এসব সংগঠনের সাথে যুক্ত ছিলাম। কিন্তু কর্মজীবনে প্রবেশ করে আস্তে …

নাভিদ চৌধুরীর ভ্রমণগদ্য-২: আতলান্তেরর মিতা ও মিতালি

পাবলো কফি নিয়ে এসে বসেছে আমার পাশে, বলে ওলা। কমসতাস? (কেমন আছো?)! মুই বিয়েন (আমি ভালো) , বলেই আমি হাসতে হাসতে হাত জোড় করে বলি, এসো এসো(এতটুকু) আমার স্প্যানিশের জোর। …

সেলিম জাহানের মুক্তগদ্য: শেষ বিকেলের মেয়ে

চাবি দিয়ে ঘরের দরজা খুলতেই চমকে গেলাম। আলো উদ্ভাসিত ঘর— না, চড়া আলো নয়, বিকেলের নরম পড়ন্ত রোদের মোলায়েম আলো ডিমের হাল্কা কুসুমের মতো অনেকটা এলায়ে পড়েছে ঘরের মেঝেতে, তির্যকভাবে …

আঞ্জুমান রোজীর ভ্রমণগদ্য: মায়াবী ছোট্ট শহর ইলোরা

কানাডার অন্টারিও প্রভিন্সের একটি ছোট্ট শহর, নাম তার ইলোরা। এখানে ইলোরা নামে একটি শহর আছে, ভাবতেই পুলকিত হয়ে উঠি। ইলোরা মানেই তো ভারতের সেই ঐতিহাসিক অজন্তা ইলোরা। অন্টারিওতে কিভাবে ইলোরা …

নাভিদ চৌধুরীর ভ্রমণগদ্য-১: মরুদ্যানে কথোপকথন

আমি ধীরে ধীরে ওয়াদি শেতার পাশ ঘেঁষে হাঁটছি। গলু (আমার গাধা, নাম আমারই দেয়া) আনমনে হাঁটতে হাঁটতে এদিক ওদিক তাকাচ্ছে। আমরা মানে আমি আর আমার বন্ধু হামজা আজকে ওয়াদি শেতার …

মাহমুদ হাফিজের ভ্রমণগদ্য: ফ্লোরেন্স গর্জন মুখর প্রশান্ত-সৈকত

পাহাড়ের আঁকাবাঁকা রাস্তায় সাদারঙের ‘শেভরোলে’ যখন ছুটতে শুরু করলো, শক্ত করে সিটবেল্ট বেঁধে আমরা তখন আল্লাহ আল্লাহ জিকির করছি। দুদিকেই আকাশমুখী পাহাড়। ঢালে বৃক্ষ-আচ্ছাদিত ঘনজঙ্গল। নিচে আগাছায় ঘেরা গিরিখাত দিয়ে …

কাজী রাফির ভ্রমণগদ্য:পশ্চিম আফ্রিকার পথ এবং প্রান্তরে

পশ্চিম আফ্রিকায় নভেম্বর শুরুর সকালের বাতাসটা বড় স্নিগ্ধ। যদিও দুপুরের দিকে তাপমাত্রা চল্লিশ ডিগ্রি অতিক্রম করছে তবু রাতে তা নেমে যাচ্ছে পঁচিশ ডিগ্রিতে। গত চারমাস মালির উত্তরাংশের মরুতে বৃষ্টিফোটারা মহার্ঘ্য …

শান্তা মারিয়ার ভ্রমণগদ্য: গড মেড ওকলাহমা

ইউ আর দ্য রিজন গড মেড ওকলাহমা ঝকঝকে তকতকে বিশাল ওকলাহমা সিটি আর নরম্যান নামের ছোট্ট শহর। যেখানেই যাচ্ছি ঝাঁ চকচকে অফিস, ঠাঁটবাট দেখে চোখ ট্যারা হয়ে যাচ্ছে। এরই মধ্যে …

শান্তা মারিয়ার ভ্রমণগদ্য: গড মেড ওকলাহমা

ঘটনাটা ২০০৬ সালে। সেপ্টেম্বর মাস। স্থান ওকলাহোমা স্টেট। মহাদেশ আমেরিকা। লিডারশিপ ইন জার্নালিজম নামে একটি সংক্ষিপ্ত ফেলোশিপ প্রোগ্রামে অংশ নিতে ওকলাহমায় গিয়েছি আমরা দশজন সাংবাদিক। এদের মধ্যে বেশ কয়েকজন এখন …

সুধাংশু শেখর বিশ্বাসের ভ্রমণগদ্য: ম্যাকেলিনা

আমরা চললাম ‘মাউন্ট ম্যাকলিং’ ঘুরে দেখতে।  স্থানীয়রা বলে হিল ম্যাকেলিনা। হিলের পাদদেশে গাড়ি থামলো। ডাইনে তাকাতেই চোখে পড়লো সাইনবোর্ড। লেখা ‘আন্তর্জাতিক ধান গবেষণা ইন্সটিটিউট’। বিস্ময়ের ঘোর কাটে না আমার। ইরি’র …

শামীম আজাদের ভ্রমণগদ্য: ডার্লিং ধ্রুবাদি

শামীম আজাদ চোখ বুঁজে ধ্রুবাদি’র ভয়েস রেকর্ড শুনে থ হয়ে যাই। কী করে সম্ভব! দিদি বয়স্ক অন্ধদের গার্ডেন নিয়ে গিয়ে স্পর্শের মাধ্যমে গাছ চেনান। বৃটিশ বোটানিক্যাল-সোসাইটি ওর যে ওডিও রেকর্ড …