লুইস লুনা’র দুটি কবিতা

[লুইস লুনা (Luis Luna)। জন্ম১৯৭৫। বসবাস করেন মাদ্রিদে। ডক্টরেট করেছেন হিস্পানি দর্শনশাস্ত্রে। ইংরেজি ফরাসি আরবি পর্তুগিজ স্লোভাকসহ। নানা ভাষায় তার কবিতা অনূদিত হয়েছে। কাব্যগ্রন্হ পাঁচটি। এছাড়া আছে প্রবন্ধ ও গবেষণামূলক গ্রন্হ। ইন্টারন্যাশনাল পোয়েট্রি রিভিউ ইউ এস এ -প্রকাশিত তার হাঙ্গার কবিতার অনুবাদ করেছেন প্রখ্যাত কবি রেজাউদ্দিন স্টালিন।]

 

ক্ষুধার্ত-১

শীত আপনাকে ক্ষুধার্ত করে তোলে
স্বস্তির ঘ্রাণ এক অবিশ্বাস্য চামচ
যা আপনি ব্যবহার করেন ইন্দ্রিয়গ্রাহ্যতায়
আর মেঘের কেক কেটে খান
আর তৃষ্ণার মরুতে খুঁজে ফেরেন বৃষ্টি
আপনার কাছে তা হলোকাস্ট অথবা স্লিভার সেতু
অথবা জং ধরা বাসি পুষ্প
যদি সত্যি ফেলে রাখেন চামচটি
বরং পান করুন অমেয় জল
যা ভেঙে ফেলবে আপনার অপেক্ষা
যে অপেক্ষার বিচ্ছিন্নতা দেয় নির্ভরতা
সব বিচ্ছন্নতাই সহায়ক অঙ্কুরিত বৃষ্টির

 

ক্ষুধার্ত-২

জড়ো হওয়া বোতলগুলোর মুখ
চশমায় আলো হরিণের নাচ
চোখগুলো ফুলের পাপড়ি
হরিণ এক চোখ থেকে লাফিয়ে অন্য চোখে
সৌন্দর্য কি রাত্রি শেষে সরিয়ে নেয়া যায়
এগিয়ে আনা যায় ভবিষ্যৎ
রাত্রির কালো নিকশ বাহুর অন্ধকার
যা বিদীর্ণ করে নামে বৃষ্টি
বিষ্ময়ের অনিবার্যতায় পৃথিবী ফুটে ওঠে দৃষ্টির শীর্ষবিন্দুতে

 

রেজাউদ্দিন স্টালিন

রেজাউদ্দিন স্টালিন (জন্ম ২২শে নভেম্বর, ১৯৬২) কবি, লেখক ও টেলিভিশন ব্যক্তিত্ব। তিনি আশির দশকের অগ্রগণ্য ও সফল কবি হিসেবে বিবেচিত। তার রচিত কাব্যগ্রন্থের সংখ্যা প্রায় পঞ্চাশটি। কবিতায় অবদানের জন্য তিনি ২০০৬ সালে বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার লাভ করেন।

রেজাউদ্দিন স্টালিনের উল্লেখযোগ্য হচ্ছে: “পূর্ণ্যপ্রাণ যাবে”-১৯৮৩ সাল, “দাঁড়াও পথিকবর”-১৯৮৬ সাল (একটি যৌথ প্রকাশনা), “ফিরিনি অবাধ্য আমি”-১৯৮৫, “ভেঙে আনো ভিতরে অন্তরে”-১৯৮৭, “সেইসব ছদ্মবেশ”-১৯৮৯, “আঙ্গুলের জন্য দ্বৈরথ”-১৯৯২, “আশ্বর্য আয়নাগুলো”-১৯৯২, “ওরা আমাকে খুঁজছিল”-১৯৯৭, “সম্ভাবনার নিচে”-১৯৯৬, “পৃথিবীতে ভোর থেকে দেখিনি কখনো”-১৯৯৭, “আশীর্বাদ করি আমার দুঃসময়কে”-১৯৯৮, “হিংস্র নৈশভোজ”-১৯৯৯, “আমি পৃথিবীর দিকে আসছি”-২০০০, “লোকগুলো সব চেনা”-২০০১, “নিরপেক্ষতার প্রশ্ন”-২০০২, “পদশব্দ শোন আমার কন্ঠস্বর”-২০০৩, “পুনরুত্থান পর্ব”-২০০৪, “অবিশ্রুত বর্তমান”-২০০৫, “মুহুর্তের মহাকাব্য”-২০০৬ সাল, “অনির্দিষ্ট দীর্ঘশ্বাস”-২০০৮, “ভাঙা দালানের স্বরলিপি” ২০০৯, “কেউ আমাকে গ্রহণ করেনি”-২০০৯ সাল। রেজাউদ্দিন স্টালিনের কবিতা ইংরেজি, হিন্দি, উর্দু, উড়িয়া, রুশ, জার্মান, চীনা, জাপানী ও ফরাসী ভাষায় অনূদিত হয়েছে।

রেজাউদ্দিন স্টালিন  দীর্ঘদিন নজরুল ইনস্টিটিউটের উচ্চপদে কর্মরত ছিলেন।

Facebook Comments

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।